Best SoftwareComputer TipsMobile TipsReviewsSoftwareVideo Editing

সেরা ১৪টি ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার কম্পিউটার এবং মোবাইলের জন্য – Best Video Editor

আপনি কি কম্পিউটার এবং মোবাইলের জন্য সেরা ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার খুঁজছেন? তাহালে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য। আমি এমন কিছু কম্পিউটার এবং এন্ড্রয়েড মোবাইলের অ্যাপস নিয়ে কথা বলবো যেগুলোর মাধ্যমে অনেক সহজে ভিডিও এডিট করতে পারবেন।

ইউটিউবার বা এডিটর এবং চলচ্চিত্র নির্মাতাদের জন্য সেরা সেরা ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার আবশ্যক। অথবা যারা সামাজিক মিডিয়ার জন্য ভিডিও বা মুভি বানাতে চান তাদের জন্যও ভালো ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার আবশ্যক। আপনারা এই এডিটিং অ্যাপস গুলো ব্যবহার করে প্রফোসানাল ভাবে ভিডিও এডিট করতে পারবেন।

সেরা ১৪টি ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার

তো চলুন কম্পিউটার বা এন্ড্রয়েড মোবাইলের জন্য সেরা ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার কোনগুলো তা দেখে নেই।

01. Adobe Premiere Pro

ভিডিও এডিটিং এর জন্য অন্যতম একটি সফটওয়্যার হলো এডোবি প্রিমিয়ার প্রো। অ্যাডোবি প্রিমিয়ার প্রো একটি টাইমলাইন (Timeline) ভিত্তিক ভিডিও এডিটিং অ্যাপ্লিকেশন। আমরা সবাই এডোবি প্রোডাক্ট গুলো সম্পর্কে কমবেশি জানি। এডোবি সফটওয়্যার গুলো অনেক শক্তিশালী এবং মানসম্মত হয়ে থাকে।

এডোবি ক্রিয়েটিভ ক্লাউড ২০০৩ সালে এই সফটওয়্যারটি উন্মোচন করে। বিবিসি নিউজ এবং সিএনএনের মতো বড়-বড় নিউজ প্রতিষ্ঠান এডোবি প্রিমিয়ার প্রো এর মাধ্যমে ভিডিও এডিটিং করে থাকে। এছাড়া অনেক জনপ্রিয় ইংলিশ মুভি এডোবি প্রিমিয়ার প্রো দ্বারা এডিট করা হয়। Deadpool এবং Superman এর মতো মুভিতেও এডোবি প্রিমিয়ার প্রো ব্যবহার করা হয়েছে।

Adobe Premiere Pro Screenshot
Adobe Premiere Pro

বিভিন্ন ধরনের ইফেক্ট, লেয়ার এডজাস্টমেন্ট, ভিডিও ট্রানজিশন, টাইম রেন্ডারিং, ক্লিক স্পিড, ট্রাকিং ইফেক্ট ছাড়াও আরো অনেক অনেক ফিচার আপনি প্রিমিয়াম প্রো তে পাবেন।

Visit Adobe Premiere Pro Official Page

আপনি যদি মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিট করতে চান তাহলে Adobe Premiere Rush: Video এই আপস ইন্সটল করতে পারেন গুগল প্লেস্টর থেকে।

02. CyberLink PowerDirector

সাইবারলিংক পাওয়ার ডিরেক্টর একটি অনবদ্য ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার বিশেষ করে প্রফেশনাল ইউটিউবারদের জন্য। CyberLink PowerDirector একটি সাশ্রয়ী মূল্যের, সাবস্ক্রিপশন-মুক্ত ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার। এটি ভিডিও এডিটিং সরঞ্জামগুলির অ্যারে এবং শাটারস্টক লাইব্রেরিতে অ্যাক্সেস সরবরাহ করে।

এই সফটওয়্যারে আপনারা বিভিন্ন ধরনের এডভান্স ফিউচার পেয়ে যাবেন। সাধারণ ফিচারগুলোর সাথে সাথে কিছু প্রিমিয়াম ফিচার পাবেন যা অন্য কোন অ্যাপ্লিকেশনে পাবেন না এইজন্য এই সফটওয়্যার’টি বিগিনার ইউটিউবার কিংবা প্রফেশনাল ইউটিউবার যে কারো ক্ষেত্রে এই ভিডিও এডিটিং পছন্দের তালিকায় সবসময় উপরের দিকে থাকে।

এছাড়াও পাওয়ার ডিরেক্টর সফটওয়্যারটি 360° ভিডিও, 4K ভিডিও সাপোর্ট করে। তাই খুব সহজেই আপনি সকল ডাইমেনশনের ভিডিও এডিট এবং সেভ করতে পারবেন।


CyberLink PowerDirector
CyberLink PowerDirector
Visit PowerDirector Official Page

আপনি চাইলে PowerDirector আপনার এন্ড্রয়েড ফোন এই আপস ইন্সটল করতে পারেন। এটিতে বিভিন্ন টুলস ছাড়াও কালার এডজাস্টমেন্ট, মাল্টি ক্যাম এডিটিং, মোশন ট্রাকিং, ভিডিও কোলাজ সহ অসংখ্য ফিচার রয়েছে। এসব ফিচার ব্যবহারের মাধ্যমে আপনার এডিটিং হবে অনেক প্রাণবন্ত।

Install PowerDirector Android App

03. Apple Final Cut Pro

ভিডিও এডিটিং সফ্টওয়্যারের ক্ষেত্রে অ্যাপলের ফাইনাল কাট প্রো হল সব থেকে ভালো একটি Video Editing Software. এটি টিভি এবং চলচ্চিত্রের সমস্ত মিডিয়া জুড়ে ব্যবহৃত হয় – অন্তত যারা ম্যাক ব্যবহার করে। প্রিমিয়ার প্রো থেকে এটি বেছে নেওয়ার প্রধান কারণগুলির মধ্যে একটি হল এটি সাবস্ক্রিপশন-মুক্ত: আপনি একবার কিনে নিলে সারাজীবন ব্যাবহার করতে পারবেন এবং শুধুমাত্র একবার।

Final Cut Pro
Final Cut Pro

এছাড়াও Final Cut Pro সফটওয়্যারটি 360° ভিডিও, 2K, 4K, 5K এবং 8K ভিডিও সাপোর্ট করে। এটি সংমিশ্রিত ভিডিও ট্র্যাকগুলির একটি সংখ্যা সমর্থন করে, সীমাহীন অডিও, একাধিক ভিডিও, স্ট্যান্ডার্ড রিপল, রোল, স্লিপ, স্লাইড, স্ক্রাব, রেজার ব্লেড এবং টাইম রিম্যাপিং এডিট ফাংশন। এটিতে কালার সিলেকশন, স্লাইডার এবং কার্ভ, ভিডিও স্কোপ এবং স্লাগ, কালার সংশোধন টুলস রয়েছে।

Visit Final Cut Pro Official Page

04. Wondershare Filmora

জনপ্রিয় ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার গুলোর মধ্যে Wondershare Filmora অন্যতম। ভিডিও এডিটিং এর জন্য প্রয়োজনীয় প্রায় সকল ফিচারই আপনি ওয়ান্ডার শেয়ার ফিলমোরা তে পাবেন। এই সফটওয়ার দিয়ে ট্রিম করা, কালার এডজাস্ট করা, লেয়ার যোগ করা, ট্রানজিশান দেওয়া এবং ক্রপ করা এছাড়াও আর বেশ কিছু অপশন রয়েছে।

Wondershare Filmora
Wondershare Filmora
Visit Filmora Official Page

সবচেয়ে ভালো দিক হলো যে, এই Wondershare Filmora আপনি মোবাইল ডিভাইস এবং কম্পিউটার ডিভাইস এই দুটোতেই ব্যবহার করতে পারবেন।

ওয়ান্ডার শেয়ার ফিলমোরা মোবাইল অ্যাপ FilmoraGo একটি উন্নত মানের শক্তিশালী ভিডিও এডিটিং এপস এই মোবাইল ভিডিও এপসটি ব্যবহার করে আপনারা সম্পূর্ণভাবে একটি প্রফেশনাল কোয়ালিটির ভিডিও তৈরি করতে পারবেন এই এপসটির সব থেকে ভালো দিক হলো এটি আপনারা সম্পূর্ণ ফ্রি ব্যবহার করতে পারবেন।

Install FilmoraGo Android App

05. Corel VideoStudio Pro / Ultimate

Corel VideoStudio Ultimate হল ভিডিও এডিটিং স্পেসের একটি সুপরিচিত নাম — সফ্টওয়্যারটির প্রথম ২০০৪ সালে প্রকাশিত হয়েছিল। প্ল্যাটফর্মের সর্বশেষ সংস্করণ, Corel VideoStudio Pro 2022, উন্নত রঙের গ্রেডিং বিকল্প, আরও এডিটিং টুলস, এবং একাধিক ভিডিও ওভারলে করার জন্য ভালো একটি সফটওয়্যার।

Corel VideoStudio Ultimate Pro
Corel VideoStudio

এটিতে রয়েছে বেস কিছু নতুন স্পেশাল ফিচার যেমন অ্যানিমেটেড AR স্টিকার, ফেস ইফেক্ট এবং ক্যামেরা মুভমেন্ট ট্রানজিশন, ড্র্যাগ-এন্ড-ড্রপ এডিটিং স্পেস, ইনস্ট্যান্ট প্রজেক্ট টেমপ্লেট, Gif ক্রিয়েটর এবং স্পিচ টু টেক্সট কনভার্টার অন-দ্য-ফ্লাই ভিডিও তৈরি ও এডিটিং করতে এবং শেয়ার করতে।

Visit VideoStudio Official Page

06. Camtasia Studio

ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার গুলোর মধ্যে ক্যামটাসিয়া স্টুডিও কথা না বললেই নয়। অল-ইন-ওয়ান ভিডিও এডিটিং এবং স্ক্রিন রেকর্ডিং সফটওয়্যার। আপনি যদি ইউটিউবে জন্য টিউটোরিয়াল ভিডিও বানাতে চান তবে টেকস্মিথ ক্যামটাসিয়া ষ্টুডিও আপনার জন্য বেস্ট সলিউশন। নতুনদের কথা মাথায় রেখে এটি নির্মিত, ক্যামটাসিয়া ডিজাইনারদের দ্রুত এবং দক্ষতার সাথে পেশাদার প্রশিক্ষণ ভিডিও তৈরি করতে সাহায্য করে। এটি উইন্ডোজ এবং ম্যাকওএস উভয়ের জন্য করা হয়েছে।

Camtasia Studio
Techsmith Camtasia Studio

আপনার প্রয়োজনীয় প্রায় সকল ফিচারই আপনি এই সফটওয়্যার পাবেন এবং ইউজার ইন্টারফেস অনেক সহজ। তাই যে কেউ এই সফটওয়্যার ব্যাবহার করতে পারবে।

Visit Camtasia Official Page

07. KineMaster

Kinemaster এমন একটি ভিডিও এডিটিং মোবাইল এপস যার মাধ্যমে আপনারা অ্যাডভান্স এবং প্রফেশনাল ভাবে ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন। এই অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে আপনারা মোবাইলে কম্পিউটারের মতো ভিডিও বানাতে পারবেন। এটি গুগল প্লে স্টোরে সব থেকে জনপ্রিয় ভিডিও এডিটিং অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ।

KineMaster Application
KineMaster Application

ভিডিও এডিটিং করা এখন নিত্য প্রয়োজনীয় রূপ লাভ করেছে ৷ আরও বলাবাহুল্য যে এন্ড্রয়েড মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং প্রত্যেক ইউটিউবার এবং টিকটকারদের কাছে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হয়ে দাড়িয়েছে। আর এন্ড্রয়েড দিয়ে ভিডিও এডিটিং এর ক্ষেত্রে বেস্ট ভিডিও এডিটিং এপ্স হল কাইনমাস্টার। এটি এমন একটি ভিডিও এডিটিং অ্যাপ, যার মাধ্যমে খুবই নিখুঁতভাবে ভিডিও এডিটিং করা সম্ভব।

KineMaster App Review

এটি বিশ্বব্যাপী ভিডিও রেকর্ডিং, ভিডিও তৈরি এবং ভিডিও সম্পাদনার জন্য ব্যবহৃত হয় কারণ এটি বিভিন্ন ধরণের ফাংশন প্রদান করে যেমন ট্রানজিশন ইফেক্ট, ইমেজ এবং ভিডিও লেয়ারিং, হস্তলিখিত পাঠ্য প্রদর্শন, অডিও ট্র্যাক, লাইভ – ইন রেকর্ডিং, ভলিউম নিয়ন্ত্রণ এবং আরও অনেক কিছু।


Install KineMaster App

আরো পড়ুনঃ

08. Sony Vegas Pro

ভেগাস প্রো এডিটিং পেশাদার ভিডিও এবং অডিও সম্পাদনাকে সহজ করেছে। Vegas Pro ভিডিও, এনিমেশন ভিডিও, ইন্ট্রো ভিডিও বা অডিও ম্যাটেরিয়াল তৈরি, সম্পাদনা এবং মাস্টার করার জন্য একটি ভালো সফ্টওয়্যার। এই সফ্টওয়্যারটি GPU শক্তি ব্যবহার করে ভিডিও সামগ্রীকে অনেক দ্রুত রেন্ডার করে তোলে।

VEGAS Pro SD, HD, 2K, এবং 4K রেজোলিউশন পর্যন্ত মিডিয়া সমর্থন করে। উচ্চ রেজোলিউশনে কাজ করা আরও সহজ এবং নমনীয়তা প্রদান করে। নতুন ভার্শনটি মাল্টি-টুল-কনসেপ্ট, প্রজেক্ট-ফাইলিং বা প্রক্সি-ফার্স্ট-ওয়ার্কফ্লো-এর মতো কিছু বৈশিষ্ট্য অফার করে যা কার্যপ্রবাহ সরলতার ক্ষেত্রে সত্যিই অসাধারণ।

Sony Vegas Pro
Sony Vegas Pro

এই সফটওয়্যার’টি আমি নিজেও বেশ কয়েকবার ব্যাবহার করেছি এনিমেটেড ইন্ট্রো ভিডিও বানানোর জন্য।

Visit Vegas Pro Official Page

09. Apple iMovie

Details is coming soon next update

10. Shotcut

Shotcut ভিডিও এডিটিং করার জন্য অনেক সেজা একটি ওপেন সোর্স সফটওয়্যার। যারা নতুন ভিডিও এডিট করতে যাচ্ছেন তাদের জন্য শর্টকাট সেরা। শর্টকাট একটি ওপেন সোর্স সফটওয়্যার যা আপনি সারা জীবন সম্পূর্ণ ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন।

Shotcut Free Video Editor
Shotcut Free Video Editor

এটা দিয়ে স্ক্রিন রেকর্ডিং, অডিও এডিটর, ভিডিও কাটিং, ট্রিমিং, টেক্সট, টাইটেল, ভিডিও ইফেক্ট, প্রিসেট, ট্র্যাক, ট্রানজিশন, অ্যাডভান্স ফিচার ব্যবহার করে প্রফেশনাল ভাবে ভিডিও এডিটিং করতে পারেন।

Visit Vegas Pro Official Page

11. HitFilm Express

হিটফিল্ম এক্সপ্রেস উইন্ডোজ এবং ম্যাকের জন্য একটি বিনামূলের ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার। HitFilm Express দিয়ে ইফেক্ট, প্রিসেট, ট্র্যাক, ট্রানজিশন, অডিও এডিটিং, ভিডিও কাটিং, ট্রিমিং, টেক্সট, স্প্লিসিং ব্যবহার করতে পারবেন। এছাড়াও গ্রিনস্ক্রিন অপশন দিয়ে খুব সহজে ভিডিও এর ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করতে পারবেন।

HitFilm Express
HitFilm Express

আপনি সফটওয়্যারে ২০০+ স্পেশাল এফেক্ট পারেন। এছাড়াও যে কোনো ফরমাটে ভিডিও সেভ করতে পারবেন। সিনেমাটোগ্রাফি এবং ডিজিটাল প্রভাবগুলি এমনভাবে বিকশিত হয়েছিল যে মোশন ট্র্যাকিং ভিডিও সম্পাদনার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ দিককে উপস্থাপন করে

Visit HitFilm Express Official Page

12. VivaVideo

VivaVideo হল একটি সহজে ব্যবহারযোগ্য ভিডিও এডিটর এবং প্রো ভিডিও মেকার যা আপনাকে সহজেই রেকর্ড করতে সাহায্য করে। ভিভা ভিডিও এন্ড্রয়েড মোবাইলের জন্য একটি সেরা ভিডিও এডিটিং এপস হিসেবে প্রমাণ করেছে সারাবিশ্বে। অনেক ব্লগার এবং ইউটিউবার যারা অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে ভিডিও করে সফলতা পেয়েছেন তারা এই সফটওয়্যারটিকে সেরা হিসাবে রিভিউ দিয়েছে।

VivaVideo Editor Maker App
VivaVideo – Video Editor&Maker

Viva Video-তে হয়েছে শক্তিশালী ভিডিও সম্পাদনা ফাংশন। যেমনঃ ভিডিও কাটিং, ভিডিওগুলি একত্রিত করা, সঙ্গীতের সাথে ভিডিও অ্যাড করা, দুর্দান্ত ট্রানজিশন, স্টিকার যুক্ত করা, ভিডিওগুলিতে লেখা যুক্ত করুন ইত্যাদি৷

Install VivaVideo App

13. Lightworks

Details is coming soon next update

14. Magisto

ম্যাজিস্টো ভিডিও এডিটর, মিউজিক স্লাইডশো, ফটো কলেজ এবং মুভি মেকার। ১২০ মিলিয়নেরও বেশি ইউজার ইতিমধ্যেই Magisto মোবাইল এবং ওয়েব অ্যাপের মাধ্যমে তাদের প্রয়োজনীয় সমস্ত ভিডিও তৈরি করে। এটি স্টেবিলাইজেশন, অবজেক্ট ডিটেকশন, ফিল্টার এবং ইফেক্ট সহ ভিডিও এডিটিং কৌশল প্রয়োগ করে।

Magisto Video Editor Music Slideshow Maker App
Magisto Video Editor and Slideshow Maker

এই এপস’টি ব্যবহার করে যদি কেউ সঠিকভাবে ভিডিও এডিট করতে পারে তাহলে সেই ভিডিও যেকারো পছন্দ হবে। এটির সব থেকে ভালো দিক হলো আপনারা এই এপসটি ব্যবহার করে খুব সহজে এবং দ্রুত ভিডিও এডিট করতে পারবেন।

Install Magisto App

উপরে যে ভিডিও এডিটর গুলোর কথা বলেছি সবগুলোই যথেষ্ট উন্নত মানের সফটওয়্যার। আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি ( সেরা ১৪টি ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার কম্পিউটার এবং মোবাইলের জন্য ) পড়ার পর আপনাদের খুবই ভালো লেগেছে। যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে এই আর্টিকেলটি শেয়ার করতে ভুলবেন না আর আর্টিকেলটি পড়ার পর আপনাদের কেমন লেগেছে তা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। ধন্যবাদ

Rating Box

Features
Easy to Use
Performance

Best

Best Editing Software

User Rating: 4.78 ( 13 votes)

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

You Have AdBlocker Enabled

Please Disable you AdBlock to Continue using this Website.